পোল্ট্রি-ব্রয়লার মুরগি পালন করার পদ্ধতি ও খামার ব্যবস্থাপনা

আজ আমরা এই পোষ্টটি তৈরী করেছে, ব্রয়লার মুরগি পালন করার পদ্ধতি ও খামার ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে জানানোর জন্য। ব্রয়লার বা পল্টি হলো মুরগির মাংস উৎপাদনের জন্য এক বিশেষ ধরনের মুরগি জাত যাদের দেহের ওজন ৩০ থেকে ৩৫ দিনে দেড় থেকে দু’কেজি হয়। ঐ সময়ে এরা এক কেজি দেহের ওজনের জন্য মোটামুটিভাবে দেড় কেজি খাবার খাই। ব্রয়লারের মাংস খুব নরম ও সুস্বাদু। এটি পালন করা খুব লাভজনক কারন ব্রয়লার মুরগি খুব দ্রুত বৃদ্ধিপায়। তাই আপনি ভাবছেন যে কি করে ব্রয়লার পালন করা যায়। ব্রয়লার মুরগি ব্যবসা শুরু করার জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য জানাবে আমাদের AgroHavenBD টিম, তাই আপনি পোল্ট্রি মুরগি পালন / ব্রয়লার পালন পদ্ধতি সম্পর্কে তথ্য গুলি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

ব্রয়লার পালন পদ্ধতি

ব্রয়লার বা পোল্ট্রি মুরগি লিটার, মাচা এবং খাঁচা পদ্ধতিতে পালন করা যায়। তাই আপনার যেমনি জায়গা থাকুক নাকেন আপনি ব্রয়লার মুরগি পালন করতে পারেন। কিন্তু মনে রাখতে হবে যে, প্রতি পিছ বাচ্চাকে জায়গা দিতে হবে ৪৫সে.মি. (৭ বাঃ ইঞ্চি) , এবং বড় মুরগিকে জায়গা দিতে হবে ১-বর্গ মিটার। আপনি যদি বাণিজ্যিক ভাবে ব্রয়লার মুরগি চাষ করেন তাহলে, ব্রয়লারকে ২৩ ঘন্টা আলো সরবরাহ করতে হয়। এই আলো দিনের আলোর সাথে সামঞ্জস্য রেখে ব্যবস্থাপনা করলে ভালো হয় কারন মুরগি গুলা ভাল অনুভব করে। এছাড়া পোল্ট্রিব্রয়লার চাষ করতে হলে আপনাকে নিম্নের তথ্য গুলি মন দিয়ে পড়া উচিৎ বলে আমি অনে করি।

আরো তথ্য জানতে পারেন নিম্নের লিংক থেকে:-
1) মুরগির ঘর তৈরির নিয়ম
2) মুরগির কি কি রোগ হয়
3) মুরগির রানীক্ষেত রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার
4) মুরগির বাচ্চা ব্রুডিং করার পদ্ধতি

ব্রয়লার মুরগির জাত

ভালো সুস্থ্য ও ভারী ওজন বিশিষ্ট বিভিন্ন মোরগ মুরগির মধ্যে মিলন ঘটিয়ে, ছাটাই বাছাই করে দীর্ঘ গবেষণার পর কাঙ্খিত বৈশিষ্ট্যের সমন্বয়ে অধিক মাংস উৎপাদনশীল এই হাইব্রিড ব্রয়লার মুরগি তৈরি করা হয়।

ব্রয়লার মুরগির জাতের নামঃ- সেভার স্টার ব্রো, ভেনকব, হাবার্ড হাইইল্ড, সেভার মিনি ব্রো, এভিয়ান, কব্ ১০০, সেভারট্রাপিক ব্রো, হাবার্ড ক্লাসিক, কব্ ৫০০, ইসা- ডেভেট ই-৭৫৭, সি এন্ড এম ক্লাসিক, হাইসেক্স-জি, ইসা-এমপিকে-৩০, হাবার্ড হাই ওয়াই, রস-৩০৮, আরবার একরস, কাছিলা হাবচিকস্, হারচিক হাইব্রো, লোমান মিট, ইন্ডিয়ান রিভার।
ব্রয়লার জাত ও দেশের নামঃ
  1. কব-৫০০ (উৎপত্তিস্থল- যুক্তরাষ্ট্র)
  2. হাবার্ড ক্লাসিক (উৎপত্তিস্থল- ফ্রান্স)
  3. ষ্টার ব্রো (উৎপত্তিস্থল- কানাডা)
  4. হাইব্রো পিএন (উৎপত্তিস্থল- নেদারল্যান্ড)
  5. আরবার একর (উৎপত্তিস্থল-যুক্তরাষ্ট্র)
  6. হাইব্রো পিজি +(উৎপত্তিস্থল- ফ্রান্স)

ব্রয়লার মুরগির জাত নির্বাচন

ব্রয়লার মুরগি নির্বাচনঃ
১. গুণগতমানের ব্রয়লার বাচ্চা সংগ্রহ করতে হবে;
২.ব্রয়লারের জন্য খুব তাড়াতাড়ি বাড়ে এমন মুরগির জাত সঠিক ভাবে নির্বাচন করতে হবে। কারণ সব মুরগি সমান ভাবে ওজন বাড়ে না।
 

ঘরের পরিচর্যা ও জীবাণুমুক্ত করণ পদ্ধতিঃ
ঘরের লিটার পরিস্কার হতে হবে এবং উন্নত জীবাণুনাশক দিয়ে তা জীবাণুমুক্ত করতে হবে। ঘরের দেয়াল-মেঝে ভালমত পানি দিয়ে পরিস্কার করতে হবে। তবে কস্টিক সোডা দিয়ে পরিষ্কার করলে ভালো হয় । ফিউমিগেশন শুরু করার পূর্বে দরজা, জানালা, ভেন্টিলেটর প্রভৃতি বন্ধ করতে হবে যাতে ঘরে কোনো বাতাস না ঢুকে। ঘরের প্রতি ১০০ ঘন ফুট জায়গার জন্য ৬০ গ্রাম পটাসিয়াম পার-ম্যাঙ্গানেট ও ১২০ মি.লি. ফরমালিন (৪০%) দিয়ে ফিউমিগেট করতে হবে।

ব্রয়লার মুরগির ব্রুডিং পদ্ধতি

ব্রুডিং এর জায়গার পরিমাপ:- ১ম সপ্তাহ প্রতি বর্গমিটারে (১বর্গ মিটার=১০.৭৬ বর্গফুট) ৬০-৬৫টি বাচ্চা ব্রডিং করা যাবে এবং ২য় সপ্তাহে প্রতি বর্গমিটারে ৩০-৩৫টি বাচ্চা ব্রুডিং করা যাবে। অর্থাৎ ৩০ ফুট বা ৯.১ মিটার লম্বা লম্বা চিকগার্ডের সাহায্যে ৫০০টি বাচ্চা ব্রডিং করা যাবে। আর চিকগার্ডের পরিধি প্রতিদিনই সামান্য পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে হবে।

ব্রুডিং চিক গার্ডের উচ্চতা:- উচ্চতা ৪৫-৫০ সেন্টিমিটার বা ১৮-২০ ইঞ্চি।

ব্রয়লার মুরগির বয়স ভেদে খাদ্য প্রদানঃ

  1. প্রি-স্টার্টার ১- ১৪ দিন
  2. স্টার্টার   ১৫-২৬ দিন
  3. ফিনিসার-(১) ২৭-৩৫ দিন
  4. ফিনিসার-(২) ৩৬ দিন থেকে বাজারজাতকরন পর্যন্ত।

ব্রয়লারের খাদ্য প্রদানের ক্ষেত্রে কিছু সতর্কতাঃ

  • গ্রীষ্মকালে দিনের ঠান্ডা সময়ে (সকাল-সন্ধ্যা) খাদ্য প্রদান করার উপর গুরুত্ব দিতে হবে।
  • সম দূরত্বে পর্যাপ্ত সংখ্যক খাদ্য পাত্র স্থাপন করতে হবে।
  • খাদ্য পাত্র অর্ধেকের উপর ভর্তি হলে খাদ্য অপচয় বৃদ্ধি পায়।
  • পাত্রের তল মুরগির পিঠ সমান উচ্চতায় রাখতে হবে।
  • খাদ্যে প্রয়োজনমতো আমিষ, শক্তি, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, খনিজ পদার্থ, ভিটামিন, এমাইনো এসিড সরবরাহ করে খাওয়াতে হবে।

বিক্রির পূর্বে যন্ত : নিয়মিত খাবার ও পানি সরবরাহ করা, প্রতি সপ্তাহে ওজন পরীক্ষা করা, লিটার বেশি আর্দ্র হলে এর উপর কাঠের গুড়া বা তুষ ছিটিয়ে দিতে হবে, প্রতিদিন ২৩ ঘণ্টা করে আলো সরবরাহ করা, সূর্য অস্তের পর কৃত্রিম আলোর ব্যবস্থা করতে হবে, ব্রয়লার ঘরের তাপমাত্রা ১৮-২২ডি.সে. এর মধ্যে রাখা, গ্রীষ্মকালে বৈদ্যুতিক ফ্যান ব্যবহার করতে হবে।

ব্রয়লার পালনের কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

স্থান তৈরী:- ফ্লোরে পালন করলে প্রতি বর্গমিটারে (১বর্গ মিটার=১০.৭৬ বর্গফুট) ১০ থেকে ১২টি ব্রয়লার এবং মাঁচা তৈরি করে পালন করলে প্রতি বর্গমিটারে ১৫টি ব্রয়লার পালন করা যাবে।

খাবার পাত্র স্থাপন:- লম্বা খাবার পাত্র প্রতি ৫ সেন্টিমিটারের জন্য ১টি ব্রয়লার এবং গোল খাবার পাত্রপ্রতি ২ সেন্টিমিটারের জন্য ১টি ব্রয়লার হিসেবে সরবরাহ করতে হবে। তবে ব্রুডিং এর সময় প্রতি ৮০-৯০টি বাচ্চার জন্য ১টি খাবার প্লেট সরবরাহ করতে হবে।

পানির পাত্র স্থাপন:-  লম্বা পানির পাত্র প্রতি ২ সেন্টিমিটারের জন্য ১টি ব্রয়লার এবং গোল পানির পাত্র প্রতি ১ সেন্টিমিটারের জন্য ১টি ব্রয়লার হিসেবে সরবরাহ করতে হবে। তবে ব্রুডিং এর সময় প্রতি ১০০টি বাচ্চার জন্য ১টি পানির প্লেট সরবরাহ করতে হবে।

আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন ফেজবুক পেজ ও গ্রুপ এর মাধ্যমে।
আমাদের ফেজবুক পেজ : ⇒ Facebook Page 
আমাদের ফেজবুক গ্রুপ: ⇒ Facebook Group

ব্রয়লার মুরগি বিক্রয়ের সময় করণীয়

ব্রয়লার ঠান্ডা সময়ে ধরা উচিত। ব্রয়লার ধরার অন্তত: ২ থেকে ৩ ঘন্টা পূর্বে খাদ্য বন্ধ করতে হয়। দিনে ঘর অন্ধকার করে নেওয়া অথবা রাত্রিবেলায় ডিমলাইট জ্বালিয়ে ব্রয়লার ধরা ভাল। ধরার পূর্বে ঘরের সরঞ্জামাদি সরিয়ে ফেলা উচিৎ এবং ক্যাচিং হুক বা হার্ডল ব্যবহার করলে ভালো হয়। ব্রয়লার ধরার সময় ঝাপাঝাপি করা ঠিক নয়। পরিবহনকালে খাচায় অধিক গাদাগাদি পরিহার করা উচিৎ নয়।ধরার পর ৪ থেকে ৫ ঘন্টা পর্যন্ত অভূক্ত রাখা যায়। অভূক্ত রাখার ফলে কিছুটা ওজন কমলেও প্রক্রিয়াজাত করা সহজ হয়। ব্রয়লার চিলিং বা ঠান্ডা করার পর শতকরা ২ থেকে ৩ ভাগ ওজন বৃদ্ধি পায়।

ব্রয়লার পালন ও চিকিৎসা:-

⇐♥ পোষ্টি শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ 

আপনার কিছু বলার বা জানার থাকলে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেনা এছাড়া আমাদের ফেজবুক পেজে ও জানাতে পারেন।

ব্রয়লার পালন ও চিকিৎসা, ব্রয়লার পালনে লাভ, ব্রয়লার মুরগি পালনে লাভ, ব্রয়লার মুরগি পালনের নিয়ম, ব্রয়লার পালন পদ্ধতি, ব্রয়লার মুরগি পালন, ব্রয়লার পালনের নিয়ম, ব্রয়লার মুরগি পালন পদ্ধতি, পল্টি পালন, পল্টি মুরগি পালন, পল্টি মুরগি পালনের পদ্ধতি, ব্রয়লার পালন ব্যবস্থাপনা, ব্রয়লার বাচ্চা পালন, ব্রয়লার মুরগি পালন বই, মুরগির পালন পদ্ধতি, পোল্ট্রি মুরগি পালন, পোল্ট্রি মুরগি পালনের পদ্ধতি,

Leave a Comment

Your email address will not be published.