সকল ছাগলের ভিটামিন ঔষধ ও ইনজেকশন। খাওয়া ও ব্যাবহারের নিয়ম জানুন।

আজ আমরা জানতে চলেছি যে ছাগলের ভিটামিন ঔষধের নাম , ভিটামিন ইনজেকশনের নাম , ছাগলের ভিটামিন খাওয়ার নিয়ম ও ব্যাবহারের নিয়ম সম্পর্কে কিছু তথ্য। ছাগল পালনের ভালো লাভবান হতে  আপনাদের ছাগলকে কখন কিভাবে ভিটামিন ঔষধ ও ইনজেকশন ব্যাবহার করতে হয় সে সম্পর্কে জ্ঞান ও ধারণা থাকা উচিৎ। বিভিন্ন কৃষি সমস্যা ও সমধান সম্পর্কে সঠিক তথ্য পেতে, আপনি আমাদের ওয়েবসাইট AgroHavenBD.com ভিজিট করতে পারেন এবং আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আপনারা যদি সঠিক সময়ে ছাগলকে লিভার টনিক ভিটামিন ক্যালসিয়াম না খাওয়াই তাহলে ছাগল বিভিন্ন ধরনের রোগ ও অসুস্থ হবে। ছাগল যদি ঘনঘন অসুস্থ হয় বা ছাগলের যদি ঠিক না থাকে তাহলে আপনার ব্যাবসাতে লাভ হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। তাই চলুন দেরি নাকরে জেনে আসি আপনার ছাগলকে কোন ভিটামিন ঔষধ ও ইনজেকশন প্রয়োগ করলে আপনি ভালো ফল পাবেন।

ছাগলের ভিটামিন ঔষধ

ছাগলের ভিটামিন ঔষধ

আমরা যারা ছাগল পালন করি আমরা প্রত্যেকেই চিন্তাভাবনা করে ছাগল পালন করে থাকি কারণ আমরা কিছু ইনকাম করার আসাতে ছাগল ফার্ম করি। কিন্তু ছাগলের ফার্ম থেকে ইনকাম করতে হলে আমাদেরকে ছাগল সব সময় সুস্থ রাখতে হবে এবং সুস্থ রাখতে হলে আমাদেরকে বিভিন্ন ধরনের ভালো ও উচ্চ মানের খাবার দিয়ে থাকি। আমাদের এর পাশাপাশি ছাগলের ভিটামিন ওষুধ খাওয়ানো উচিৎ কারণ ছাগলের ভিটামিন বি কমপ্লেক্স না খাওয়ালে তাদের গ্রোধ ও স্বাস্থ্য ভাল হয় না। তাই আমেদের রুটিন মেনে ভিটামিন, ক্যালসিয়াম, লিভার টনিক এই পাশাপাশি এবং ভালো খাবার ছাগলকে খাওনো উচিৎ।

ছাগলের ভিটামিন ঔষধের নাম সমূহ:- 

ক্রমিক নং ভিটামিন ঔষধের নাম ঔষধের ধরণ
০১ রেনা ব্রিডার- RAna Breeder (premix)  পাওডার
০২ Becevit Vet (Powder) পাওডার
০৩ বি কম ভেট (B Com Vet) সিরাপ
০৪ রেনাসল এডি৩ই (Renasol ad3e solution) পাওডার
০৫ সিভিট ভেট (Cevit Vet) পাওডার
০৬ জিস ভেট (Zis Vet) সিরাপ
০৭ রেনা সি (Rena C Powder) পাওডার
০৮ রেনা বি+সি (Rena B+C) পাওডার

ছাগলের ভিটামিন ইনজেকশন

ছাগলের ভিটামিন ইনজেকশন

ছাগলের ভিটামিন ইনজেকশনের নাম সমূহ:- 

ক্রমিক নং ভিটামিন ইনজেকশনের নাম ঔষধের ধরণ
০১ রোনাসল এডি৩ই (Renasol ad3e injection) ইনজেকশনের
০২ বি৫০ ভেট (B50 Vet) ইনজেকশনের
০৩ ইএস এডিই (Es-ADE) ইনজেকশনের

ছাগলের ভিটামিন খাওয়ার নিয়ম

মনে রাখবেন যে কোন ভিটামিন যখন ছাগলকে দেবেন বা কোন গরুকে দেবেন সেটা যেন রাত্রেবেলা দেওয়া হয়। রাতের দিলে খুবই ভাল কাজ করে। ছাগল বা গরুকে যে কোন ভিটামিন প্রয়োগের আগে একটা গুরুত্বপূর্ণ কথা মনে রাখতে হবে আর সেটা হচ্ছে যে কোন ভিটামিন প্রয়োগ এর আগে তাকে ডিওয়ার্মিং এবং লিভার টনিক দেওয়া উচিত। এর পরে আপনি উক্ত যে কোন একটি ভিটামিন আপনারা প্রয়োগ করতে পারেন।

সর্ব প্রথমে আমাদেরকে ছাগলকে কৃমির ঔষধ খাওয়াতে হবে। সেটি প্রত্যেক মাসে দুই মাস অন্তর খাওয়াতে হবে। যদি আপনারা সঠিক সময়ে ছাগলের কৃমিনাশক ঔষধ না খাওয়াই তাহলে ছাগলের শরীর ভালো থাকবে না। ছাগলের খাওয়ার রুচি কমে যাবে এবং ছাগল ঘনঘন মল-মুত্র ত্যাগ করবে। এর জন্য সকলকে সঠিক নিয়ম মত কৃমিমুক্ত ঔষধ খাওয়াতে হবে। ছাগলের কৃমির ঔষধ খাওয়ানোর পর ব্যবহার করতে পারবেন যে কোন ধরণের লিভার টনিক। আপনার ছাগলকে যেকোন লিভার টনিক খাওয়াতে পারবেন কোন অসুবিধা নেই। 

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ-  সব সময় চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ঔষধ খাওয়ানো উচিৎ এতে আপনি ভালো ফল পাবেন। এছাড়া কোন সমস্য হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ভিটামিন বি কমপ্লেক্স কখন দিবেন?

আপনারা সব সময় ভিটামিন দিতে পারেন এবং যেকোন ট্রিটমেন্ট চলাকালীন ভিটামিন বি কমপ্রেক্স খাওয়াতে পারেন বা ইনজেকশন দিতে পারেন। ছাগলের জ্বর হয়েছে ও ছয় থেকে সাত দিন ছাগলের ট্রিটমেন্ট করতে হবে। এই ছয় থেকে সাত দিনের মধ্যে আপনাদেরকে ট্যাবলেট, পাওডার বা ইঞ্জেকশন এর মাধ্যমে ছাগলকে ভিটামিন বি কমপ্রেক্স দিতে পারেন তাহলে আপনার অন্যা ওষধে ভালো কাজ করবে। ছাগলের ট্রিটমেন্ট করার সময় ছাগলের শরীর দুর্বল হয়ে যায়। ছাগলের শরীর দুর্বল না হয় এর জন্য আগে থেকেই ছাগলকে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স দিতে পারেন। ছাগল ছোট হোক বড় হোক বা প্রেগন্যান্ট সবার জন্য আলাদা আলাদা ওষুধ পাওয়া যায়, সেটিই আপনারা ব্যবহার করতে পারেন। ছাগলকে  ডিওয়ার্মি করতে হবে। ডিওয়ার্মি না করলে কোন খাবার বা ভিটামিন ঔষধ আপনার ছাগলের সরিল পরিবর্ত করতে পারবেনা। তাই সর্ব প্রথমে আপনার ছাগলকে ডিওয়ার্মি করাতে হবে। তারপর শরীরের কৃমি দূর করতে হবে, তারপরে ভিটামিন, ক্যালসিয়াম, লিভার টনিক দিতে হবে।

গর্ভবতী ছাগলের ভিটামিন ঔষধ

আপনার ছাগল যদি গর্ভবতী হয়ে থাকে তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধ খাওয়াবে তাহলে আপনার ও আপনার ছাগলের ভালো, কারণ আপনি যদি ছাগলে ভুল চিকিৎসা নেন তাহলে আপনার গর্ভবতী ছাগলের ক্ষতি হতে পারে। তাই গর্ভবতী ছাগলের ভিটামিন ঔষধ কোন নাম উল্লেখ করলাম না। আমি চাই না যে আমার ছোট একটা পরামর্শে আপনার কোন ক্ষতি হক।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ- ছাগলের ফার্ম থেকে ইনকাম পেতে হলে ছাগল পরিচর্যা খুব ভালো করে করতে হবে। সঠিক সময়ে লিভার টনিক, ভিটামিন, ক্যালসিয়াম এবং সঠিক পরিমাণে ছাগলকে খাবার দিতে হবে। তবেই ভালো ইনকাম করা সম্ভব হবে। ছাগল যেন অসুখে না পড়ে সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে এবং সবসময় ছাগল সুস্থ রাখার চেষ্টা করতে হবে। এছাড়া কোন সমস্য হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

♠♠ প্রিয় দর্শক কৃষি সম্পর্কে কিছু বলার বা জানার থাকলে, আপনি আমাদের ফেজবুক পেজ বা ফেজবুক গ্রুপে যোগ দিতে পারেন এবং আপনার প্রয়োজনীয় মতামত জানাতে পারেন।  এছাড়া আপনার কি? কোন কৃষি পণ্য ক্রয় করতে চাচ্ছেন তাহলে আমাদের ফেজবুক পেজ  AgroHaven Shop এ এসএমএস এর মাধ্যমে জানাতে পারেন। পোষ্টটি পড়ার পর যদি ভালো লাগে তাহলে শেয়ার করে সবাইকে  পড়ার সুযোগ করে দেবেন।  

ছাগলের ভিটামিন ঔষধ, ছাগলের ভিটামিন, ছাগলের ভিটামিন ওষুধ, ছাগলের ভিটামিন ইনজেকশন, ছাগলের ভিটামিন প্রিমিক্স, ছাগলের ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ছাগলের ভিটামিন খাওয়ার নিয়ম, ছাগলের ভিটামিন ঔষধের নাম, গর্ভবতী ছাগলের ভিটামিন, ছাগলের ভিটামিন ট্যাবলেট, ছাগলের ভিটামিনের নাম কি,

Leave a Comment

Your email address will not be published.